কর্মীবৃন্দ ও ইন্টার্ন

সববাংলায় ডট কম এর আজ যে সাফল্য তা সম্ভব হয়েছে সববাংলায় এর প্রতিষ্ঠাতাদের পাশাপাশি লেখক, সম্পাদক, সোশ্যাল মিডিয়া কর্মী এবং স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়মিত অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে। বেশ কিছু মানুষ সববাংলায় ইন্টার্নশিপে যোগ দিয়েছিলেন বাংলায় কন্টেন্ট রাইটিং বা সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে বিস্তারিত জানতে। পরবর্তীকালে তাঁদের মধ্যে বেশ কিছু মানুষ সববাংলায় প্রতিষ্ঠানে লেখক, সম্পাদক বা সোশ্যাল মিডিয়া কর্মী হিসেবে নিযুক্ত হয়েছিলেন। কিছু মানুষ সরাসরি লেখক বা সোশ্যাল মিডিয়া কর্মী হিসেবে যোগদান করেছিলেন। সেই সমস্ত কর্মীবৃন্দ ও ইন্টার্নদের পরিচিতি নিচে দেওয়া হল।


অর্পিতা প্রামাণিকঃ অর্পিতা প্রামাণিকের জন্ম পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা জেলায়। বাংলায় স্নাতকোত্তর এবং গ্রন্থবিজ্ঞান নিয়ে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেছেন৷ পেশাগতভাবে কলকাতার একটি হোর্ডিং কোম্পানিতে দশ বছর ধরে কাজ করছেন৷ সববাংলায় প্রতিষ্ঠানে ২০১৯ সাল থেকে ২০২১ সালের জুলাই মাস পর্যন্ত নিয়মিত লেখিকা ছিলেন। ২০২২ সালের মার্চ মাস থেকে আগস্ট মাস অবধি সববাংলায় মিডিয়ার কর্মী হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন। পাশাপাশি পড়তে এবং লিখতে ভালোবাসেন৷ শখ বলতে একটা সময় ছিল বই পড়া। পুরনো সিনেমা দেখতে আর সুযোগ পেলে লেখালেখি করতে ভালোবাসেন৷ 


শর্মিষ্ঠা ঘোষঃ শর্মিষ্ঠা ঘোষের জন্ম পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া জেলায়। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কলা বিভাগে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেছেন। কিছু বছর কয়েকটি টেলিকম কোম্পানির টেলিমার্কেটিং বিভাগে কর্মরত ছিলেন। পরে গৃহশিক্ষকতাকে পেশা হিসেবে বেছে নেন। সববাংলায় প্রতিষ্ঠানে ২০১৯ সাল থেকে ২০২০ সালের জুন মাস অবধি নিয়মিত লেখিকা ছিলেন। পড়াতে ভালো লাগে তাঁর। শখের মধ্যে রয়েছে গান শোনা ও ভ্রমণ।


জুবিন ঘোষঃ জুবিন ঘোষের জন্ম পশ্চিমবাংলায়। তিনি ব্যাচেলর অফ হসপিটাল ম্যানেজমেন্ট করার পর এমবিএ এবং এমবিএমটেক পড়াশোনা সম্পন্ন করেছেন। পেশাগতভাবে তিনি একজন প্রকাশক এবং ড্রাগ লাইসেন্স কনসাল্ট্যান্ট। তাঁর প্রকাশনার নাম গিলগামেশ প্রকাশনী। সববাংলায় প্রতিষ্ঠানে সম্পূর্ণ ২০১৯ সালে নিয়মিত লেখক ছিলেন। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে তিনি সববাংলায় লেখালিখি সাইটের সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছেন। লেখালিখি সাইট ছাড়াও তিনি অন্যান্য বিভিন্ন ম্যাগাজিন, ওয়েবজিন বা পত্রিকা সম্পাদনা করেছেন। তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল ক্ষেপচুরিয়াস, পরিবার, হেডলাইনস টুডে, সংবাদ সাতদিন, আজকের অনির্বাণ পত্রিকা ইত্যাদি। পাশাপাশি তিনি নিয়মিত একজন লেখক এবং সঙ্গে শিক্ষকতাও করেন। তাঁর প্রকাশিত পুস্তকগুলো হল ‘মেগাস্থিনিসের খাতা’, ‘যে কোনও অপশাসনের বিরুদ্ধে’, ‘আটকুঠুরির দেশ’, ‘যেখানে বাঘের ভয়’, ‘সংগঠিত ইতরের বাণী’ ইত্যাদি।


সিমন রায়ঃ সিমন রায়ের জন্ম উত্তর ২৪ পরগণা জেলার বরানগরে। প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় স্বর্ণপদক সহ প্রথম বিভাগে প্রথম স্থানে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছেন। সববাংলায় প্রতিষ্ঠানে ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে সববাংলায় ইন্টার্ন হিসেবে যোগদান করেন। ইন্টার্নশিপ শেষে নিয়মিত লেখকের ভূমিকায় বেশ কিছুদিন কাজ করার পরে ২০২১ সালের জুন থেকে ২০২২ সালের জুন মাস অবধি সববাংলায় সাইটের সহকারী সম্পাদকের পদে নিযুক্ত ছিলেন। এছাড়া অনুবাদমূলক নানা প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত। এছাড়া বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কনটেন্ট লেখেন। বাংলা থিয়েটার ও নাট্যসাহিত্য চর্চায় নিযুক্ত। বাংলা ভাষায় বিজ্ঞানচর্চার কাজে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে নিবন্ধ-সংবাদ এবং কিছু মেডিকেল- প্যারামেডিকেল কোর্সের বই ইত্যাদি অনুবাদ করে থাকেন। প্রচুর বই পড়া আর সাহিত্যচর্চায় অবসর যাপন করে থাকেন। শখ বলতে দুষ্প্রাপ্য বই সংগ্রহ। 


প্রভাস মন্ডলঃ প্রভাস মন্ডলের জন্ম পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া জেলার অন্তর্গত উলুবেড়িয়ায়, যদিও বেড়ে ওঠা কলকাতা ঘেঁষা উত্তর চব্বিশ পরগনায়। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গভাষা ও সাহিত্য বিভাগ থেকে এম.এ পাশ করেছেন। বর্তমানে সিধো-কানহো-বীরসা বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি করছেন। ২০২০ সালের নভেম্বর মাস থেকে তিনি সববাংলায় ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখক হিসাবে কাজ করছেন। এছাড়াও বর্তমানে ‘আচমন’ পত্রিকার সঙ্গে যুক্ত। এর আগে ‘তাবিক’ নামের এক কবিতাপত্রিকার সম্পাদকমন্ডলীর অন্তর্ভুক্ত ছিলেন এবং ‘তাবিক’ এবং ‘শুধু বিঘে দুই’-সহ আরও বেশ কয়েকটি কাগজে কবিতা প্রকাশিত হয়েছে। উত্তমকুমারকে নিয়ে ‘আচমন’-এর ছোটবই ‘উত্তম নিশ্চিন্তে চলে’ সংকলনে একটি প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। ছোটগল্প পড়তে এবং তা নিয়ে আলোচনা করতে পছন্দ করেন। কবিতা এবং প্রবন্ধ পাঠেও প্রবল আগ্রহ। সিনেমা এবং ফোটোগ্রাফির শখ ভীষণ। ইউটিউবে ট্রাভেল ব্লগের চ্যানেল রয়েছে একটি। পেইন্টিং নিয়েও উৎসাহের শেষ নেই।


সুদীপ্তা দেবঃ সুদীপ্তা দেবের জন্ম পশ্চিম বর্ধমান জেলায়। বিহারে (অধুনা ঝাড়খন্ড ) লাগোয়া পশ্চিমবঙ্গের রেলশহর নামে পরিচিত চিত্তরঞ্জনে রেলের স্কুল ও কলেজে পড়াশোনা। অ্যাকাউন্টেসিতে অনার্স নিয়ে স্নাতক চিত্তরঞ্জনের দেশবন্ধু মহাবিদ্যালয় থেকে। বর্তমানে একটি বুটিক চালান। সববাংলায় প্রতিষ্ঠানে ২০২১ সালের মে মাস থেকে ২০২২ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত নিয়মিত লেখিকা ছিলেন। মূলত বিভিন্ন ব্যাক্তির জীবনী ও পৃথিবীর জয়প্রিয় ম্যাসকট গুলি সম্বন্ধে সববাংলায় লিখেছেন। অবসর সময়ে গল্পের বই পড়া, লেখালেখি করা ও বাগান করা অন্যতম শখ। সুযোগ পেলেই ঘুরতে বেরিয়ে পড়েন কাছে বা দূরে।


কুহেলী বসুঃ কুহেলী বসুর জন্ম হুগলী জেলায় চুচুঁড়া শহরে। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রাচীন ভারতীয় ইতিহাসে এম.এ করেছেন। সববাংলায় ইন্টার্নশিপ ২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চ কোর্স করেছিলেন। এই কোর্সের মাধ‍্যমে কন্টেন্ট রাইটিং বিষয়ে, মিডিয়ায় কীভাবে প্রচার করা হয়, বিভিন্ন বিষয়ে লেখার পদ্ধতি পুঙ্খানুপুঙ্খ শিখেছিলেন। ২০২২ সালের জুলাই এবং আগস্ট মাসে তিনি সববাংলায় মিডিয়ার কর্মী হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন। তাঁর প্রিয় বিষয় ইতিহাস ও বিজ্ঞান। এর পাশাপাশি পড়াতে ভালবাসেন। কলেজের দ্বিতীয় বর্ষ থেকেই এই পেশায় যুক্ত হয়েছিলেন। আবৃত্তি তাঁর অন‍্যতম শখ। এছাড়া বই পড়া, ছবি আঁকা, গান শোনা শখের মধ‍্যে রয়েছে।


অঙ্কিতা কোলেঃ অঙ্কিতা কোলের জন্ম পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া জেলায়। পেশাগতভাবে কেন্দ্রীয় সরকারী কর্মচারী। সববাংলায় প্রতিষ্ঠানে ২০২১ সালের মার্চ মাসে লেখিকা হিসেবে কাজ করেছেন। পরবর্তীকালে লেখক হিসাবে কাজ না করলেও স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে সববাংলায় ইউটিউব চ্যানেলের জন্য ভয়েস আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করছেন।