প্রবন্ধ-নিবন্ধ

খুশির ঈদ

খুশির ঈদ

শেখ আলতাফ উদ্দিন


কাল ছিল রমজান মাসের শেষ দিন। ভাইজান খবর এনেছিল চাঁদ দেখা গেছে, সঙ্গে এনেছিল সবার নতুন জামাকাপড়। ভাইজানকে সেই ছোট থেকেই দেখে আসছি প্রতিবারে ঈদে আমাদের সকলের জন্য নতুন জামা আনবেই। ছোটবেলায় তো ভাইজানের এই নতুন প্যাকেটটার জন্য অপেক্ষা করে থাকতাম। আজও ছিলাম।

এবার সব ভাই বোন মিলে আমাদের প্রধান উৎসব ঈদ পালন করব। শুধু আমরা কেন, সারা দেশ জুড়েই, দেশ কেন সারা পৃথিবী জুড়েই মুসলিম ভাই বোনেরা পালন করবে ঈদ।
ঈদ এর পবিত্র নামাজ শেষ হতেই সবাই একে অপরকে আপন করে নেবে ঈদ এর গলা মিলে। ছোট শিশুরা নতুন জামা পরে চলে যাবে সব আত্মীয় দের বাড়িতে নিজের ঈদি(ঈদ এর দিনে পাওয়া উপহার) আদায় করতে। সেওয়াই, পরাঠা, ফিন্নি, কতই না খাওয়া দাওয়া চলবে সারা দিন ধরে। হাসিতে খুশিতে সারা পৃথিবী মেতে থাকবে এই পবিত্র দিনে। ভাবতেই যে কি আনন্দ হচ্ছে।

বাবা মা শিখিয়েছে কেউ যতই মনে আঘাত দিয়ে থাকুক, যতই শত্রু হোক, ঈদ এর দিন এ সব ভুলে সবাই কে ভালোবাসতে হয়, কারোর কাছে ক্ষমা চেয়ে নিতে হয়, কাউকে ক্ষমা করে দিতে হয় ঈদ এর গলা মিলে।
চলুন সবাই মেতে উঠি এই খুশির দিনে, আপন করে নি সকল মানুষকে, সে হিন্দু হোক আর মুসলিম, শিখ হোক আর খ্রীষ্টান, সবাই এক সঙ্গে কামনা করি যেন গড়ে উঠুক এক শান্তির জগত, মুছে যাক সব হিংসা আর ভেদাভেদ। আমাদের সকলের জীবনটা আলোকিত হয়ে উঠুক, এই উজ্জ্বল ঈদ এর চাঁদ এর মতো। আমাদের শুভ কামনা পূর্ণ হোক।
ঈদ এর শুভেচ্ছা গ্রহণ করুন, ভালোবাসা গ্রহণ করুন আর বিলিয়ে দিন।


 

Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।

রচনাপাঠ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে চান?



এখানে ক্লিক করুন

বাংলাভাষায় তথ্যের চর্চা ও তার প্রসারের জন্য আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন