সোশ্যাল মিডিয়ায় কাজ করার আবেদন

সোশ্যাল মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর – আপনি কি সোশ্যাল মিডিয়াতে খুবই একটিভ থাকেন এবং দিনের অনেকটা সময় সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যয় করেন? সোশ্যাল মিডিয়াতে এই যে সময় ব্যয় করেন তার যথাযথ মূল্য কি আপনি পাচ্ছেন? যদি না পান, তাহলে সববাংলায় আপনার জন্য এনে দিচ্ছে এক সুবর্ণ সুযোগ। আজই যোগ দিন সববাংলায় এর সোশ্যাল মিডিয়া টিমে। আমাদের প্রয়োজন সোশ্যাল মিডিয়া সম্বন্ধে সম্যক ধারণা আছে এমন ব্যক্তি যিনি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় উপস্থিত আছেন, যিনি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ার পলিসিগুলো বোঝেন এবং সেই পলিসি মেনে সববাংলায় এর বিভিন্ন কন্টেন্ট নিয়মিত সেই সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মগুলোতে শেয়ার করতে পারবেন। যিনি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ার পলিসি মেনে সেখানে সববাংলায় এর বিভিন্ন কন্টেন্ট-এর জন্য উপযুক্ত লাইন লিখতে পারবেন এবং ছবি বানাতে পারবেন। যিনি সববাংলায় সোশ্যাল মিডিয়ার অ্যাকাউন্ট থেকে নিয়মিত সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট দিতে পারবেন। এছাড়াও সোশ্যাল মিডিয়াতে অন্যান্য আরও কাজ যা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে করা সম্ভব।

কাজের সময় দৈনিক এক থেকে দুই ঘণ্টা। কাজ যেহেতু ঘরে বসে তাই আপনি আপনার যেকোন সময়ে তা করতে পারেন, তবে মাসের শুরুতে আপনার নির্ধারিত সেই সময়টি আমাদের জানানো অবশ্য কর্তব্য। মাসের মধ্যেও এই সময়ে কোন পরিবর্তন এলে আপনি লিখিতভাবে মেইলে আমাদের সেটা জানাবেন। এই কাজের জন্য আপনার নির্ধারিত সময়ে আপনি ফোন ও হোয়াটস্যাপে সহজে উপলব্ধ থাকবেন। দ্বিপাক্ষিক যোগাযোগ ঘরে বসে কাজের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।এই কাজের জন্য আপনি মাসে ২৫০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা অবধি আয় করতে পারবেন। এই আয়ের মূল্য কাজের প্রকারভেদের ওপর নির্ভর করবে। উদাহরণস্বরূপ আপনি শুধুমাত্র সববাংলায় কন্টেন্ট বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারেন, আবার আপনি সববাংলায় কন্টেন্ট শেয়ারের পাশাপাশি সববাংলায় সোশ্যাল মিডিয়ার অ্যাকাউন্ট থেকে নিয়মিত সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট করতে পারেন ইত্যাদি।

সোশ্যাল মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর পদের জন্য কীভাবে আবেদন করবেন – আপনি ফেসবুকসহ কোন কোন সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় এবং কোন পেজ/গ্রুপ চালানোর পূর্ব অভিজ্ঞতা আছে কিনা লিখে contact@sobbanglay.com আইডিতে ইমেল করবেন, ইমেলের বিষয় হিসেবে লিখবেন “সোশ্যাল মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর পদের জন্য আবেদন“, ইমেলের শেষে আপনার নাম, শিক্ষাগতযোগ্যতা ও ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন।

যেমন বলা আছে ঠিক সেই ভাবেই আবেদন করবেন, না হলে নির্দেশাবলী পড়ে বুঝতে পারেননি ধরে নিয়ে আপনার আবেদন প্রথমেই নাকচ করা হবে। এছাড়া অবশ্যই ভারতে আপনার একটি চালু ব্যাঙ্ক একাউন্ট থাকতে হবে যাতে মনোনীত হলে সাম্মানিক সেই একাউন্টে পাঠানো যায়।


To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।