খেলা

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ১৯৭৫

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ১৯৭৫ ছিল ক্রিকেট বিশ্বকাপের প্রথম আসর। এই বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিক নাম ছিল ‘প্রুডেন্সিয়াল বিশ্বকাপ ১৯৭৫’। এই বিশ্বকাপের আসর ৭ জুন থেকে ২১ জুন পর্যন্ত ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হয়। সর্বমোট আটটি দেশ এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিল। ফাইনালে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে বিজয়ী হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

১৯৭১ – ১৯৭৫ সময়কালে ‘একদিনের আন্ত্রজাতিক ক্রিকেট’-এর ধারনার জন্ম হয়। এই সময়কালে টেস্ট ক্রিকেট খেলা দেশগুলোর মধ্যে মোট ১৮ টি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ খেলা হয়। তাই আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ১৯৭৫ ছিল প্রথম বৃহত্তরভাবে অনুষ্ঠিত নির্দিষ্ট সংখ্যক ওভারের একদিনের আন্তর্জাতিক (Limited Overs One Day International) ক্রিকেট প্রতিযোগিতা। এই প্রতিযোগিতা স্পনসর করেছিল ‘ ‘প্রুডেন্সিয়াল অ্যাসিওরেন্স কোম্পানি।
আটটি দলকে দুটি গ্রুপে ভাগ করা হয়।  প্রথম গ্রুপে ছিল ইংল্যান্ড, নিউ জিল্যান্ড, ভারত ও ইস্ট আফ্রিকা। দ্বিতীয় গ্রুপে ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। দেশ হিসেবে এটিই ছিল ইস্ট আফ্রিকার সর্বপ্রথম ও সর্বশেষ বিশ্বকাপ।

এই বিশ্বকাপে দুটি সেমিফাইনাল ও একটি ফাইনাল সমেত মোট ১৫ টি ম্যাচ খেলা হয়েছিল। মোট ৬ টি ভিন্ন ভিন্ন ক্রিকেট মাঠে ম্যাচগুলি অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিটি ইনিংস ছিল ৬০ ওভারের। খেলার পোশাক হিসেবে ঐতিহ্যবাহী সাদারঙের পোশাক ও লাল বল ব্যবহার করা হয়েছিল।
আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ১৯৭৫ ফাইনালে অস্ট্রেলিয়াকে ১৭ রানে হারিয়ে বিজয়ী হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এই বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ক্লিভ লয়েড। ফাইনাল ম্যাচটি লন্ডনের ‘লর্ডস’-এ ১৯৭৫ সালের ২১ জুন অনুষ্ঠিত হয়েছিল।
ফাইনাল ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া টস জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেয়। অস্ট্রেলিয়ার বোলিং-এর সামনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে ৬০ ওভারে ২৯১ রান তোলে। অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৫৮.৪ ওভারে ২৭৪ রানের মধ্যে অলআউট হয়ে যায়। এই ম্যাচে সবচেয়ে বেশি রান করেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্লিভ লয়েড। তিনি ৮৫ বলে ১০২ রান করেন। এই ম্যাচে সবচেয়ে ভাল বোলিং করেন অস্ট্রেলিয়ার গ্যারি গিলমোর। তিনি ১২ ওভার বল করে ৪৮ রান দিয়ে ৫ টি উইকেট নেন। ফাইনালের ‘ম্যান অফ দ্য ম্যাচ’ হন ক্লিভ লয়েড।
এই বিশ্বকাপে ৩৩৩ রান করে সবচেয়ে বেশি রান স্কোরারের শিরোপা পান নিউজিল্যান্ডের গ্লেন টারনার ও ১১ টি উইকেট নিয়ে সবচেয়ে বেশি উইকেট টেকারের শিরোপা পান অস্ট্রেলিয়ার গ্যারি গিলমোর।
১৭১ রান করে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি রান করেন নিউজিল্যান্ডের গ্লেন টারনার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্লিভ লয়েড ৫ টি ম্যাচে মোট ৪ বার বল ক্যাচ করে সবচেয়ে বেশিবার বল ক্যাচ করার রেকর্ড করেন।
এই বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে ৩৩৪ রান করে ইংল্যান্ড কোনো দেশ হিসেবে সবচেয়ে বেশি রান করেছিল।  এই বিশ্বকাপে মোট ৬ টি সেঞ্চুরি ও ৩৫ টি হাফসেঞ্চুরি করা হয়। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ১৯৭৫–এ কাউকে ‘ম্যান অফ দ্য সিরিজ’ শিরোপা প্রদান করা হয়নি।
Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।