বিজ্ঞান

অমিত সিংহল

অমিত সিংহল – এই নামের সাথে আমরা অনেকেই পরিচিত নই। কিন্তু গুগল ( Google ) নামটার সাথে আমরা প্রত্যেকেই কমবেশি পরিচিত। তবে এই দুই নামের মধ্যে কিন্তু এক বিশাল যোগসূত্র আছে। কি সেই যোগসূত্র?

১৯৬৮ সালে উত্তর প্রদেশের ঝাঁসী শহরে জন্ম অমিতের। ১৯৮৯ এ আই আই টি রুর্কী (IIT Rooekie) থেকে স্নাতক হয়ে তিনি পাড়ি দেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এবং ১৯৯৬ সালে কম্পিউটার সাইন্স নিয়ে ডক্টরেট হন। ২০০০ সালে তার বন্ধুর কথা রাখতে গুগলে যোগদান করেন। এই হল গুগলের সাথে অমিতের যোগসূত্রের শুরু।

গুগলে তো আমরা অনেককিছুই খুঁজি , কিন্তু তার ফলাফলের মধ্যে কোনগুলি আগে আসবে এবং কোনগুলি পরে আসবে, সেইটা নিয়ে কখনো সেইভাবে ভেবেছি কি? সেটাই ভেবেছিলেন অমিত। সেই সমাধানপদ্ধতি তৈরী করেছিলেন তিনি। ২০০১ সালে গুগলের অনুসন্ধান পদ্ধতিকে নতুন ভাবে তৈরী করেন তিনি এবং তার জন্য Google তাকে  “Google Fellow” উপাধি দেয়। নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকার ভাষায় – “Google এর ‘ranking algorithm’ এর জনক হলেন অমিত। এটি এমন এক সূত্র যা ঠিক করে কোন website সব থেকে সঠিক ভাবে এক ব্যক্তির করা প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে”। ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে ইনি Google Search এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট পদ থেকে অবসর নেন। নিজের অবসর জানানোর চিঠিতে তিনি লেখেন – Take nothing but memories, leave nothing but footprints! I am taking so many fond memories with me, and hopefully I’ve left a small footprint here. অর্থাৎ “শুধু স্মৃতি টুকুই নিয়ে যেও, শুধুই পদচিহ্ন রেখে যেও। আমি নিজের সাথে নিয়ে যাচ্ছি কিছু মধুর স্মৃতি এবং আশা করি কিছু পদচিহ্ন রেখে যেতে পেরেছি। ”

তার মত অনেকেই কিন্তু লোকচক্ষুর আড়ালেই ইতিহাস তৈরি করে চলেছেন। এই রকম একজন মানুষ যে আমাদেরই একজন, একজন ভারতীয় যার কাছে আমরা চিরকৃতজ্ঞ থাকবো।

স্বরচিত রচনা পাঠ প্রতিযোগিতা, আপনার রচনা পড়ুন আপনার মতো করে।

ভিডিও

বিশদে জানতে ছবিতে ক্লিক করুন। আমাদের সাইটে বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করুন। ইমেল – contact@sobbanglay.com

 


Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।