ইতিহাস

ফিফা বিশ্বকাপ ১৯৫০

ফিফা বিশ্বকাপ ১৯৫০ ছিল ফিফা বিশ্বকাপের চতুর্থ আসর। এই বিশ্বকাপের আসর ২৪ জুন থেকে ১৬ই জুলাই ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত হয়। সর্বমোট ১৩ টি দেশ এই খেলায় অংশগ্রহণ করেছিল। ফাইনালে ব্রাজিলকে হারিয়ে বিজয়ী হয় উরুগুয়ে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে এটাই ছিল প্রথম বিশ্বকাপ। এর আগে ১৯৪২ এবং ১৯৪৬ বিশ্বকাপ, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে করা হয়ে ওঠেনি। বিশ্বযুদ্ধ শেষে ফিফা আবার বিশ্বকাপের জন্য উঠেপড়ে লাগে। কিন্তু দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইউরোপের যা অবস্থা, তাতে  ইউরোপের কোন দেশই নিজের দেশে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠান করাতে তেমন আগ্রহী ছিল না। তারপরে ব্রাজিল তাদের দেশে বিশ্বকাপ করার জন্য আবেদন জানায় এবং ফিফা সেই আবেদন সানন্দে গ্রহণ করে।

এই বিশ্বকাপে প্রথমে ১৬ টি দেশ অংশগ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করেছিল। এরা হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুগোশ্লাভিয়া, বোলিভিয়া, তুরস্ক, ভারত,  ব্রাজিল,  চিলি,  ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড,  ইতালি,  মেক্সিকো,  প্যারাগুয়ে, উরুগুয়ে, স্পেনসুইডেন এবং  সুইজ্যারল্যান্ড। কিন্তু ভারত, স্কটল্যান্ড আর তুরস্ক পরবর্তীকালে এই খেলায় অংশগ্রহণ করতে রাজি হয় না।

অবশেষে ১৩টি দলকে চারটি গ্রুপে ভাগ করা হয়। প্রথম গ্রুপে ছিল মেক্সিকো, সুইজ্যারল্যান্ডব্রাজিল ও যুগোশ্লাভিয়া। দ্বিতীয় গ্রুপে ছিল চিলি,  ইংল্যান্ড, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং স্পেন। তৃতীয় গ্রুপে ছিল সুইডেন , প্যারাগুয়ে এবং ইতালি। চতুর্থ গ্রুপে ছিল বোলিভিয়া এবং উরুগুয়ে। এই বিশ্বকাপে মোট ২২ টি খেলায় ৮৮ টি গোল হয়।

ফিফা বিশ্বকাপ ১৯৫০ ফাইনালে ব্রাজিলকে ২-১ গোলে হারিয়ে বিজয়ী হয় প্রথম বিশ্বকাপ বিজয়ী উরুগুয়ে। তৃতীয় ও চতুর্থ স্থান যথাক্রমে সুইডেন ও স্পেন অর্জন করে।

মোট আটটি গোল দিয়ে ব্রাজিলের আদেমির মিনেজিস (Ademir Menezes) সর্বোচ্চ গোলাদাতা হন, এবং ব্রাজিলেরই জিজিনিও (Zizinho)  সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছিলেন।

1 Comment

1 Comment

  1. Pingback: ১৯৫০ বিশ্বকাপ ফুটবলে ভারত অংশ নেয়নি কেন | সববাংলায়

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়



তাঁর সম্বন্ধে জানতে এখানে ক্লিক করুন