বিজ্ঞান

ওয়ানাক্রাই র‍্যান্সামওয়্যার

অফিস গিয়ে যদি দেখেন আপনার বস আপনাকে মেইল করে জানাচ্ছে কোনো অচেনা ব্যক্তির পাঠানো ইমেইল না খুলতে তাহলে কেমন লাগবে ? হয়তো ভাববেন কি হলো যে হঠাৎ বস এইরকম  একটি মেইল করলেন? কিছু সমস্যা হলো নাকি কোম্পানিতে? উত্তর খুঁজতে খুঁজতে পেলেন ওয়ানাক্রাই র‍্যান্সামওয়্যার বলে একটি শব্দের। কিন্তু কি সেটি? এবং হঠাৎই এইটা নিয়ে কেন এতো শোরগোল ?

১২ মে ২০১৭ তে বিশ্বে একটি নতুন নাম শোনা যায়: WannaCry । সারা বিশ্বে ১৫০ টির বেশি দেশের প্রায় ৩ লক্ষ Windows কম্পিউটারে এই ভাইরাস হামলা করে। আপনার কম্পিউটারে যত ফাইল আছে – ছবি, গান, ভিডিও , আপনার কাজের ডকুমেন্ট, এই ভাইরাসটি আপনাকে কোনো কিছুতেই  আর হাত দিতে দেবে না। মানে আপনার বাড়িতে আপনি আর ঢুকতে পারছেন না। তবে সবাই কাজ করে কিছু উদ্দেশ্য, কিছু দাবি নিয়ে। এই ভাইরাসটির দাবিও খুব সহজ। পয়সা দিন আর আপনার ফাইল ফেরত নিন। ঠিক যেন বাচ্চা অপহরণের পর ‘ransom’ বা ‘মুক্তিপণ’ চেয়ে ফোনের মতো ব্যাপারটা। এই কারণেই  এই ভাইরাসটির নাম ransomware। কত পয়সা দিতে হবে আপনাকে? ৩ দিনের মধ্যে তিনশো ডলার। আর না দিলে সেটি দ্বিগুণ হয়ে যাবে। ৭ দিনের মধ্যে না দিলে আপনার ফাইল আর কোনোদিন পাওয়া যাবে না। এই ভাইরাসটি সব ডিলিট করে দেবে অর্থাৎ সব মুছে দেবে। শুধু আপনার মেশিনেই নয়, আপনি যদি কোনো নেটওয়ার্ক এ যুক্ত থাকেন, এটি আপনার নেটওয়ার্কের সমস্ত কম্পিউটার এ ছড়িয়ে যাবে। এই কারণেই আপনার বস কোনো ভুলভাল ইমেইল খুলতে বারণ করেছিলেন।

আপনারা হয়তো ভাবছেন পেমেন্টটা দিলেই তো ধরা পরে যাবে যারা এটি ছড়াচ্ছে। কিন্তু জিনিসটা এত সোজা নয়। যারা এটি বানিয়েছে তারা ‘bitcoin’ ব্যবহার করছে। Bitcoin এমন একটি cryptocurrency যেটিকে চিহ্নিত করা সম্ভব নয়। সূত্রের খবর অনুযায়ী, ৩ টি bitcoin “wallet”, ব্যবহার করা হয়েছে এই প্রদত্ত অর্থ গ্রহণ করতে। Bitcoin wallet এর লেনদেন সর্বসাধারণের সহজগম্য কিন্তু এর মালিককে চিহ্নিত করা সম্ভব নয়। ১৪ মে ২০১৭ পর্যন্ত, ৩৩ হাজার মার্কিন ডলার এই wallet – এ জমা পড়েছে। ভাইরাস টি ছড়াচ্ছে email এর মাধ্যমে এবং শুধু Windows এ। বিশ্বের তাবড় তাবড় কোম্পানি গুলিকে প্রভাবিত করেছে ওয়ানাক্রাই র‍্যান্সামওয়্যার ভাইরাস। Telefónica, ব্রিটেনের  National Health Service (NHS), FedEx, Deutsche Bahn এবং LATAM Airlines ইতিমধ্যে আক্রান্ত। ব্রিটেনের  National Health Service (NHS) ৭০ হাজার যন্ত্রাংশ গ্রাস করেছে  WannaCry। এর মধ্যে কম্পিউটার, MRI মেশিন, রক্ত সংরক্ষণ করতে ব্যবহৃত ফ্রিজ  ইত্যাদি প্রাণদায়ী মেশিন ও আছে।

Nissan Motor Manufacturing UK তাদের উৎপাদন বন্ধ করে দেয় যখন তাদের সিস্টেম আক্রান্ত হয়ে পড়ে । Renault তাদের উৎপাদন বন্ধ করে যাতে এই ভাইরাস আরো মারাত্মক ভাবে ছড়িয়ে না পরে। একবার ভাবুন তো, যদি এটি রেলওয়ে বা পরমাণু বিদ্যুৎ উৎপাদনের মতো জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে, তাহলে এর প্রভাব কি হতে পারে?

১৪ মার্চ ২০১৭ তে Microsoft একটি patch বের করে তাদের Windows OS এর এই দুর্বলতা ঠিক করতে যেটিকে হাতিয়ার বানিয়ে এই ভাইরাসটি ছড়াচ্ছে । কিন্তু এই কিছুদিনের মধ্যেই এই হামলা শুরু হয়। সকলে নিজের কম্পিউটার আপডেট করেন না ঠিক সময় মতো। যারা পুরোনো Windows ব্যবহার  করেন (Windows XP, Windows Vista), তাদের জন্য Microsoft রাতারাতি patch আপডেট হিসেবে বের করে দেয়।

এখন আপনার কি করণীয়? কোনো সন্দেহভাজন ইমেইল খুলবেন না ।  যদি কোনো অচেনা বেক্তির ইমেইল খুলতেই হয়, তাহলে তাকে অন্য কোনো ভাবে একবার যোগাযোগ করে নিন এবং যাচাই করে নিন উনি সত্যিই ইমেইল পাঠিয়েছেন কিনা। অপারেটিং সিস্টেম সব সময়  আপডেটেড রাখুন। আন্টি-ভাইরাস আপডেটেড রাখুন। পাসওয়ার্ড এনক্রিপ্টেড ফাইল খোলার সময় দুবার ভাবুন। এগুলি খোলা না অবধি আন্টি-ভাইরাস এগুলো কে স্ক্যান করতে পারে না। জেনে রাখবেন, বাঁচার উপায় একটাই।  আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে।

স্বরচিত রচনা পাঠ প্রতিযোগিতা, আপনার রচনা পড়ুন আপনার মতো করে।

vdo contest

বিশদে জানতে ছবিতে ক্লিক করুন। আমাদের সাইটে বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করুন। ইমেল – contact@sobbanglay.com

 


Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।