আজকের দিনে

২১ জুন।। আন্তর্জাতিক যোগব্যায়াম দিবস

প্রতিবছর প্রতিমাসের নির্দিষ্ট কিছু দিনে কিছু দিবস পালিত হয়। নির্দিষ্ট দিনে অতীতের কোনো গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাকে স্মরণ করা বা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে জনসচেতনতা তৈরী করতেই এই সমস্ত দিবস পালিত হয়। বিশ্বের পালনীয় সেই সমস্ত দিবসগুলি মধ্যে একটি হল আন্তর্জাতিক যোগব্যায়াম দিবস (International day of yoga )।

২১ জুন সারা বিশ্বজুড়ে আন্তর্জাতিক যোগব্যায়াম দিবস পালন করা হয় সারা বিশ্বের মানুষের মধ্যে যোগ ব্যায়ামের উপকারিতা ছড়িয়ে দেওয়ার উদ্দেশ্যে।

২০১৫ সালের ২১ জুন সারা বিশ্বজুড়ে প্রথম দিনটি পালন করা হয়। ২০১৪ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভায় ভাষণ দানের সময় ২১ জুন  দিনটিকে আন্তর্জাতিক যোগব্যায়াম দিবস হিসেবে পালন করার প্রস্তাব দেন। ২০১৪ সালে ১১ ডিসেম্বর রাষ্ট্রসংঘ ঘোষণা করে, প্রতিবছর ২১ জুন দিনটি আন্তর্জাতিক যোগব্যায়াম দিবস হিসেবে পালন করা হবে। বিশ্বের ১৭৭টি দেশ এই প্রস্তাবকে সমর্থন করে। রাষ্ট্রসঙ্ঘের কোন প্রস্তাবের প্রতি এটি ছিল সর্বোচ্চ সংখ্যক দেশের সমর্থন দানের রেকর্ড।

২১ জুন তারিখে সূর্য নিজ অক্ষরেখার উপর এমনভাবে হেলে থাকে যার ফলে উত্তর গোলার্ধে  দিনের দৈর্ঘ্য হয় সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ সেদিন সূর্য বছরের অন্যান্য দিনের তুলনায় আগে ওঠে এবং অস্ত যায় দেরিতে। তাই এই দিনটি উত্তর গোলার্ধের সারা বছরের সর্বাপেক্ষা দীর্ঘতম দিন। প্রাচীনকাল থেকে ভারতে ওই দিনটিকে পবিত্র বলে গণ্য করা হয়। যোগব্যায়াম বলতে বোঝায় প্রাচীন ভারতে অনুসৃত এক ধরনের শারীরিক ও মানসিক ব্যায়াম এবং আধ্যাত্মিকতার অনুশীলন। নিয়মিত অনুশীলনের ফলে মানুষের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য সুস্থ ও সবল থাকে।

সারাবিশ্বের বিভিন্ন সংগঠন ও স্কুল-কলেজ ও নানান কেন্দ্রে শরীরচর্চা অভ্যাস করার মাধ্যমে এই দিনটি পালিত হয়ে থাকে। যোগাসন ও নিয়মিত শরীর চর্চার গুরুত্ব ও উপকারিতা জনসাধারণের মধ্যে প্রচার করার উদ্দেশ্যেই এই দিনটিতে বিভিন্ন ক্যাম্প, ওয়ার্কসপ ও ট্রেনিং অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়ে থাকে। এছাড়া বিভিন্ন আলোচনা ও কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। এছাড়া প্রতিবছর এই দিবসটি একটি ‘থিম’ বা ‘বিষয়’ নির্দিষ্ট থাকে। যেহেতু ভারত এই দিবস পালনের প্রধান উদ্যোক্তা, তাই ভারতে এই দিনটি বিশেষ উৎসাহের সঙ্গে পালিত হয়। ২০১৫ সালের ২১ জুন প্রথম আন্তর্জাতিক যোগব্যায়াম দিবসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সহ দিল্লির রাজপথে বিশ্বের ৩৫,৯৮৫ জন মানুষ ৩৫ মিনিট ধরে এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছিল। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় যোগব্যায়াম অনুশীলন এবং সবচেয়ে বেশি অংশগ্রহণকারী – উভয় কারণেই এই অনুষ্ঠানটি বিশ্ব রেকর্ড গড়েছিল। অনুষ্ঠানটির আয়োজক ছিল কেন্দ্রীয় সরকারে আয়ুশ মন্ত্রক। ২০১৮ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেরাদুনে একটি যোগশিবিরে গিয়েছিলেন, যেখানে একসঙ্গে ৬০ হাজার মানুষ অংশগ্রহণ করেছিল। ২০১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি রাঁচিতে একটি অনুষ্ঠানে যোগদান করেছিলেন, তাঁর সঙ্গে ৫০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক যোগ ব্যায়াম অনুশীলন করেছিলেন। এভাবেই প্রতি বছর ভারতের বিভিন্ন প্রদেশের আন্তর্জাতিক যোগব্যায়াম দিবস পালন করা হয়েছে।
প্রতিবছরে এই দিবসটিতে একটি নির্দিষ্ট ‘বিষয়’ থাকে।

২০২১ সালের বিষয় ছিল, ‘সুস্থ থাকার জন্য যোগব্যায়াম’ (Yoga for well-being)।২০২০ সালের বিষয় ছিল, ‘সুস্বাস্থ্যের জন্য যোগব্যায়াম – বাড়িতে থেকে যোগব্যায়াম’ (Yoga for Health – Yoga at Home)। ২০১৯ সালের বিষয় ছিল, ‘জলবায়ু পরিশোধনের কাজ করো’ (Climate Action)।
২০১৮ সালের বিষয় ছিল, ‘শান্তির জন্য যোগব্যায়াম’  (Yoga for Peace)।
২০১৭ সালের বিষয় ছিল, ‘স্বাস্থ্যের জন্য যোগব্যায়াম’ (Yoga For Health)।
২০১৬ সালের বিষয় ছিল, ‘যোগব্যায়ামের মাধ্যমে সংযুক্ত করো’ (Connect the Youth)।
২০১৫ সালের বিষয় ছিল, ‘মানসিক শান্তির জন্য যোগব্যায়াম’ (Yoga For Harmony And Peace)।

Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।

ভারতীয় উপমহাদেশের সবচেয়ে শিক্ষিত ব্যক্তি


শ্রীকান্ত জিচকর
শ্রীকান্ত জিচকর

এনার সম্বন্ধে জানতে এখানে ক্লিক করুন