আজকের দিনে

১৪ অক্টোবর ।। বিশ্ব মান দিবস

প্রতি বছর প্রতি মাসের নির্দিষ্ট কিছু দিনে বিভিন্ন দেশে কিছু দিবস পালিত হয়। ওই নির্দিষ্ট দিনে অতীতের  কোনো গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাকে স্মরণ করা বা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে জনসচেতনতা তৈরি করতেই এই সমস্ত দিবস পালিত হয়। পালনীয় সেই সমস্ত দিবস গুলির মধ্যে একটি হল বিশ্ব মান দিবস (World Standards Day)।

প্রতি বছর বিশ্বজুড়ে ১৪ অক্টোবর বিশ্ব মান দিবস পালন করা হয়ে থাকে মূলতঃ পণ্য-সেবা ইত্যাদির মান উন্নয়ন ও বজায় রাখার প্রতি কর্তৃপক্ষ, উদ্যোক্তা এবং ভোক্তাদের সচেতন করার উদ্দেশ্যে। এই বিশেষজ্ঞরা সাধারণত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মান উন্নয়ন সংস্থা যেমন, আমেরিকান সোসাইটি অব মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারস (American Society of Mechanical Engineers বা ASME), ইন্টারন্যাশনাল অরগানাইজেশন ফর স্ট্যান্ডার্ডাইজেশন (International Organization for Standardization বা ISO) ইত্যাদির হয়ে স্বেচ্ছাসেবী মান উন্নয়নে সহায়তা করে৷

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে এই মান বা স্ট্যান্ডার্ড খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে৷ আমরা প্রতিনিয়ত যেসব পণ্য ব্যবহার করি এবং যে-পরিষেবাগুলি নিত্যপ্রয়োজনীয়, এই মানীকরন (Standardization) তাদের কার্যকারিতা এবং নির্ভরযোগ্যতা বাড়াতে সাহায্য করে। উৎপাদক, উপভোক্তা এবং নিয়ন্ত্রক সকলেই মানের সাহায্যে সুবিধা লাভ করতে পারে। এই বিভিন্ন সংস্থাগুলির পারস্পরিক চুক্তির মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মানদন্ডগুলি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ব মান দিবস পালনের একটি গুরুত্বপূর্ণ উদ্দেশ্য হল উপভোক্তা, উৎপাদক, এবং নিয়ন্ত্রকদের বিশ্ব অর্থনীতিতে মান বা মানীকরণের গুরুত্ব সম্পর্কে এবং মানুষকে পণ্য ও সেবার মান বিষয়ে সচেতন করে তোলবার চেষ্টা।

১৯৪৬ সালে ২৫টি দেশের প্রতিনিধি লন্ডন শহরে মিলিত হয়ে মানীকরনের সুবিধার জন্য একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। ঠিক এর পরের বছর ১৯৪৭ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারী নতুন প্রতিষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল অরগানাইজেশন ফর স্ট্যান্ডার্ডাইজেশন তার কাজ শুরু করলেও অনেক পরে ১৯৭০ সালে প্রথম বিশ্ব মান দিবসের আনুষ্ঠানিক উদযাপন করা হয়েছিল। মূলত আইটিইউ (The International Telecommunication Union বা ITU), আইইসি(International Electrotechnical Commission) এবং আইএসও সংস্থার সদস্যরা প্রতিবছর ১৪ অক্টোবর এই বিশেষ দিবসটি উদযাপন করে এবং প্রচার করে।

বিভিন্ন দেশে বিবিধ উপায়ে এই দিনটিকে পালন করা হয় মানুষকে মানীকরনের গুরুত্ব বিষয়ে আরও বেশি সচেতন করে তোলবার জন্য৷ আন্তর্জাতিক মানকে কেন্দ্রীয় বিষয় করে প্রদর্শনী, শিক্ষামূলক সেমিনার, সম্মেলন ইত্যাদির আয়োজন করা হয়ে থাকে বিভিন্ন জায়গায়। এছাড়াও বিশ্ব মানক সহযোগিতা (World  Standard Cooperation) সংস্থা প্রতিবছর একটি করে প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। কোথাও বা  টেলিভিশন, বেতার ইত্যাদি মাধ্যমের সাহায্যে সাক্ষাৎকারভিত্তিক আলোচনার অনুষ্ঠান সম্প্রচারের ব্যাবস্থাও করা হয়ে থাকে৷ এসব ছাড়াও আরও বিবিধপ্রকার অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়ে থাকে গোটা বিশ্বজুড়ে।  

১৯৯৮ সাল থেকে প্রতিবছর এই দিবস উদযাপনের জন্য একটি বিশেষ থিম বা বিষয় নির্বাচন করে দেওয়া শুরু হয়েছিল। আইএসও, আইটিইউ, আইইসি সংস্থাগুলির উদ্যোগে নির্দিষ্ট বিষয় বা থিম কেন্দ্রিক পোস্টার তৈরি প্রতিযোগিতারও আয়োজন করা হয়ে থাকে। ২০১৬ সালে বিষয় হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছিল, মান বিশ্বাস তৈরি করে (Standards Build Trust)। ২০১৭ সালের থিম ছিল, মান শহরগুলিকে আরও বেশি স্মার্ট করে তোলে (Standards Make Cities  Smarter)। ২০১৮ সালের বিষয়, আন্তর্জাতিক মান এবং চতুর্থ শিল্প বিপ্লব (International Standards and the Fourth Industrial Revolution)। ২০১৯ সালের থিম হিসেবে নির্বাচন করা হয়, ভিডিও মান বিশ্বব্যাপী মঞ্চ তৈরি করে (Video Standards Create a Global Stage)। ২০২০ সালে এই কোভিড-১৯ অতিমারীর পরিস্থিতিতে বিশ্ব মান দিবসের বিষয় যেটি নির্বাচন করা হয়েছে তা হল- মানের সাহায্যে গ্রহের সুরক্ষিতকরণ (Protecting the Planet with Standards)।

সববাংলায় পড়ে ভালো লাগছে? এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ভিডিও চ্যানেলটিওবাঙালি পাঠকের কাছে আপনার বিজ্ঞাপন পৌঁছে দিতে যোগাযোগ করুন – contact@sobbanglay.com এ।


Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।