ইতিহাস

ইব্রাহিম আলকাজি

ইব্রাহিম আলকাজি (Ebrahim Alkazi) ভারতীয় থিয়েটার জগতের একজন কিংবদন্তী নাট্যকার। নাট্যজগতে তাঁর অবদান অপরিসীম। দিল্লির জাতীয় নাট্য স্কুলের (National School of Drama) তিনি অধ্যক্ষ ছিলেন।

১৯২৫ সালের ১৮ অক্টোবর মহারাষ্ট্রের পুণাতে একটি সচ্ছল পরিবারের ইব্রাহিম আলকাজির জন্ম হয়। তাঁর বাবা ছিলেন একজন সৌদি আরবীয় ব্যবসায়ী এবং তাঁর মা ছিলেন কুয়েতি। তাঁদের ন’টি সন্তানের মধ্যে ইব্রাহিম একজন ছিলেন।

১৯৪৭ সালে তাঁর পরিবারের অন্যান্যরা পাকিস্তানি চলে গেলেও তিনি ভারতেই রয়ে গেছিলেন এবং এখান থেকেই পড়াশোনা করেন। তাঁর প্রাথমিক শিক্ষা শুরু হয় পুণার সেন্ট ভিন্সেন্ট হাই স্কুলে (St. Vincent’s High School)। এরপর তিনি মুম্বাইয়ে সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজে (St. Xavier’s College) পড়াশোনা করেন। কলেজে পড়াকালীন তিনি সুলতান ববি পদমসির ইংলিশ থিয়েটারে কোম্পানিতে (Sultan “Bobby” Padmasee’s English Theater Company) যোগদান করেন। এখানে কিছুদিন নাট্য প্রশিক্ষনের পর তিনি লন্ডনে চলে যান পড়াশোনা করতে এবং সেখানে রয়্যাল একাডেমি অফ ড্রামাটিক আর্ট (Royal Academy of Dramatic Art, RADA)-এর সাথে যুক্ত হন। সেখানেই গ্রীক, মিশরীয়, আশেরিয়ান, সুমেরীয়, আধুনিক এবং সূক্ষ্ম শিল্প নিয়ে পড়াশোনা করেন তিনি। লন্ডনে তিনি বেশ সাফল্য অর্জন করেন। ইংলিশ ড্রামা লীগ  (English Drama League) এবং ব্রিটিশ ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন (British Broadcasting Corporation) তাঁকে  কাজের জন্য প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু তা সত্বেও তিনি কাজের সবরকম প্রলোভন ত্যাগ করে ভারতে ফিরে আসেন এবং এখানে কাজ শুরু করেন।

কিশোর বয়সে নৃত্যে তালিম নিয়েছিলেন তিনি।  ভারতীয় সঙ্গীত শিখতে তিনি নাড়া বেঁধে ছিলেন একজন হিন্দুস্তানি সঙ্গীতসাধকের কাছেও। তাছাড়াও শিখেছিলেন পিয়ানো বাজানো। আরবি, গুজরাটি, মারাঠি এবং ইংরেজি ভাষায় ছিলেন খুবই দক্ষ। তিনি যখন লন্ডনে ছিলেন, তখন তাঁর সাথে পণ্ডিত জওহরলাল নেহরুর সাক্ষাৎ হয়।  তখনই নেহরু তাঁর উৎসাহ এবং অধ্যবসায় দেখে মুগ্ধ হয়ে তাঁকে থিয়েটার গ্রুপ প্রতিষ্ঠার জন্য পড়াশোনা শেষ করে ভারতে ফিরে আসতে বলেছিলেন। নেহরুর এই প্রস্তাব তাঁকে আরও বেশি করে দেশমুখী করে তোলে। পরে তিনি দেশে ফিরে আসার পর নেহরু এবং তাঁর উদ্যোগে জাতীয় নাট্য স্কুল গড়ে তোলার প্রকল্প শুরু হয় এবং ১৯৫৯ সালে তাঁদের উদ্যোগেই দিল্লিতে জাতীয় নাট্য স্কুল  তৈরি হয়। তিনি এই প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করার প্রস্তাব পান। অভিজ্ঞতার অভাবের জন্য প্রথমে এই প্রস্তাব গ্রহণ না করলেও দুই বছর বাদে তিনি এই সংস্থার দায়িত্ব নেন।

এরপর ১৯৬২ সাল থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে সাফল্যের সঙ্গে তিনি এই পদ সামলেছেন। এছাড়াও তিনি বোম্বে প্রগ্রেসিভ আর্টিস্টস গ্রুপের (Bombay Progressive Artist’s Group) সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। তিনি জাতীয় অ্যাকাডেমি অফ ড্রামাটিক থিয়েটারের (National Academy of Dramatic Theatre) পরিচালক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তিনি ওম পুরি, নাসিরুদ্দিন শাহ, মনোহর সিংহ এবং আরও অনেক বিখ্যাত  অভিনেতাদের প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন। 
তাঁর নির্মিত গুরুত্বপূর্ণ নাটকগুলির মধ্যে অন্যতম হল ‘ব্লাইন্ড এরা’ (Blind Era), ‘ব্ল্যাক ডে’ (BlackDay), ‘ক্লোজড’ (Closed), ‘তুঘলক’, ‘অন্ধযুগ’ ইত্যাদি। তাঁর ‘ব্লাইন্ড এরা’ নাটকটি ভারতীয় থিয়েটারে বিপ্লব ঘটিয়েছিল এবং শিক্ষিত মহলে  আলোড়ন সৃষ্টি করেছিল। একসময়ে তাঁর নাম প্রায় ভারতীয় নাট্যজগতের সমার্থক হয়ে উঠেছিল। শুধু নাট্যকার হিসাবে নয় ভিস্যুয়াল আর্টের (visual art) ক্ষেত্রেও নান্দনিক প্রয়াসের প্রবর্তক ছিলেন তিনি।

রোশন আলকাজির সাথে তাঁর বিবাহ হয়। রোশন আলকাজি তাঁর নাটকের জন্য পোশাক পরিকল্পনা করতেন।  ১৯৭৭ সালে রোশন দিল্লিতে আর্ট হেরিটেজ গ্যালারি (Art Heritage Gallery) তৈরি করেন। তাঁদের দুটি সন্তান আছে। তাঁরাও নাট্যজগতের সাথে যুক্ত। প্রথম সন্তান অমল আল্লানা একজন নাট্যকার এবং ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামার প্রাক্তন চেয়ারপার্সন (Chairperson)। দ্বিতীয় সন্তান ফয়জল আলকাজিও একজন নাট্যকার।

ভারত সরকারের থেকে তিনি ১৯৬৬ সালে পেয়েছেন পদ্মশ্রী সম্মান,১৯৯১ সালে পেয়েছেন পদ্মভূষন সম্মান,২০১০ সালে পেয়েছেন পদ্মবিভূষণ সম্মান এবং দুবার- ১৯৬২ সালে পরিচালনার জন্য এবং পরে জীবনকৃতি সম্মান হিসাবে পেয়েছেন সংগীত নাটক অ্যাকাডেমির পুরস্কার। তিনি কলকাতার রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও সাম্মানিক ডক্টরেট ডিগ্রি পান। পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশ সরকারের কালিদাস পুরস্কার, টাইমস ফোরাম এবং মুম্বই ট্যালেন্টের লিভিং ওয়েলথ অ্যাওয়ার্ড এবং ২০০৮ সালে দিল্লি সরকার দ্বারা লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিলেন।

ইব্রাহিম আলকাজির ২০২০ সালে ৪ আগস্ট ৯৪ বছর বয়সে মৃত্যু হয়।
তিনি তাঁর অসামান্য কাজ আগামী প্রজন্মের জন্য রেখে গেছেন। তাঁর সেইসব কাজ আগামী প্রজন্মের কাছে পাথেয় হয়ে থাকবে।

সববাংলায় পড়ে ভালো লাগছে? এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ভিডিও চ্যানেলটিওবাঙালি পাঠকের কাছে আপনার বিজ্ঞাপন পৌঁছে দিতে যোগাযোগ করুন – contact@sobbanglay.com এ।


Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।