বিজ্ঞান

মাইক্রোওয়েভ ওভেন কাজ করে কীভাবে

আধুনিক রান্নাঘরে খাদ্যবস্তু গরম করা থেকে বিভিন্ন পদ রান্না – সব ক্ষেত্রেই মাইক্রোওয়েভ ওভেনের জুড়ি মেলা কঠিন। মাইক্রোওয়েভ ওভেন আজকের গতিশীল ও ব্যস্ততাপূর্ণ জীবনযাত্রাকে অনেক সহজ করে তুলেছে – শুধুমাত্র একটা সুইচ টিপেই দ্রুত গরম করে নেওয়া যায় খাবার। কিন্তু মাইক্রোওয়েভ ওভেন কাজ করে কীভাবে? কীভাবেই বা মাইক্রোওয়েভ ওভেনের মধ্যে রাখা খাদ্যবস্তুর তাপমাত্রা বাড়তে থাকে? কেনই বা মাইক্রোওয়েভ ওভেনে যেকোন পাত্রে রান্না করা যায় না? এখানে আমরা জেনে নেবো মাইক্রোওয়েভ ওভেনের মধ্যে কাজ করা বিজ্ঞানের তত্ত্ব।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের শেষের দিকে রাডার প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করতে গিয়ে খানিকটা আকস্মিকভাবেই মার্কিন প্রকৌশলী পার্সি স্পেনসার (Percy Spencer) মাইক্রোওয়েভ ওভেনে উদ্ভাবন করেন। রোদে দাঁড়ালে যেভাবে সূর্যের তাপ আমাদের মুখমন্ডল ও দেহকে গরম করে একই ভাবে মাইক্রোওয়েভ ওভেনের মধ্যে বিকিরণের (radiation) দ্বারা খাদ্যবস্তু গরম হয়। মাইক্রোওয়েভ ওভেনের ধাতব বাক্সের মধ্যে ম্যাগনেট্রন (magnetron) নামক একটি শক্তিশালী মাইক্রোওয়েভ উৎপাদক যন্ত্র থাকে। এটি বিদ্যুৎশক্তিকে কাজে লাগিয়ে উচ্চ ক্ষমতার রেডিও তরঙ্গ উৎপন্ন করে। মাইক্রোওয়েভের তরঙ্গদৈর্ঘ্য রেডিও ওয়েভের থেকে ছোট এবং অবলোহিত রশ্মির থেকে বড় হয়। মাইক্রোওয়েভ ওভেনের ক্ষেত্রে এই তরঙ্গের দৈর্ঘ্য সাধারণত ১২ সেমি বা ৪.৭ ইঞ্চি হয়। ওয়েভ গাইড নামের একটা বিশেষ পথ দিয়ে ম্যাগনেট্রনে উৎপন্ন মাইক্রোওয়েভ খাদ্যবস্তু রাখা কক্ষে চালিত হয়। খাদ্যবস্তু রাখা প্লেটটি ধীরে ধীরে ঘুরতে থাকে যাতে মাইক্রোওয়েভ খাদ্যের সমস্ত জায়গায় সমান ভাবে পৌঁছাতে পারে। ঠিক যেভাবে আয়নায় আলো প্রতিফলিত হয়, এই মাইক্রোওয়েভ ওই খাদ্যবস্তু রাখা কক্ষের ধাতব দেওয়ালে বার বার প্রতিফলিত হয়ে খাদ্যের মধ্যে পৌঁছায়। মাইক্রোওয়েভ খাদ্যবস্তুর মধ্যে থাকা অণুগুলি (বিশেষ করে খাদ্যের মধ্যের জল কণা) এই নির্দিষ্ট কম্পাঙ্কের তরঙ্গ শোষণ করে কম্পিত (vibration) হতে থাকে। এই কম্পনের জন্য অণুগুলো উত্তপ্ত হয়। এই ভাবে মাইক্রোওয়েভ তার মধ্যে থাকা শক্তি (energy) খাদ্যের অণুতে সঞ্চালিত করে। অণুগুলো যতদ্রুত কম্পিত হয় খাদ্যবস্তু তত তাড়াতাড়ি গরম হয়। মাইক্রোওয়েভ খাদ্যের মধ্যে থাকা তরল অংশকে দ্রুত উত্তেজিত করতে পারে, তাই পানীয় বা তরল ও অর্ধতরল খাদ্য দ্রুত গরম হয়। মাইক্রোওয়েভ খাদ্যের ভিতরে কয়েক সেমি দূরত্ব যাওয়ার পর ভরবেগ হারিয়ে ফেলে, তাই কয়েক সেমির বেশি মোটা খাদ্যবস্তুর বেলায় ভিতরের অংশ তাপের পরিচলন প্রক্রিয়ায় গরম হয়।

মাইক্রোওয়েভ ওভেন কাজ করে কীভাবে

ধাতব পাত্রের ভিতর দিয়ে মাইক্রোওয়েভ যেতে পারে না বরং ধাতব অংশে মাইক্রোওয়েভ প্রতিফলিত হয়। মাইক্রোওভেনের মধ্যে  ধাতবপাত্রে খাদ্য রাখলে এই তরঙ্গ এসে এদিক ওদিক প্রতিফলিত হয়ে ফিরে যায় ফলে খাদ্যবস্তু গরম হবে না উল্টে মাইক্রোওভেনের ভিতরের বিভিন্ন অংশে খারাপ হয়ে যেতে পারে। তাই খাদ্য এমন পাত্রে রাখতে হবে যেগুলো দিয়ে সহজে এই তরঙ্গ যাতায়াত করতে পারে। আবার কিছু প্লাস্টিক আছে যা মাইক্রোওয়েভ শোষণ করতে পারে এবং উত্তপ্ত হয়ে গলে যেতে পারে। তাই সবসময় মাইক্রোওভেনে ব্যবহার উপযোগী পাত্রেই (কাচ, সেরামিক, মাইক্রোওয়েভপ্রুফ প্লাস্টিক ইত্যাদি) খাদ্যবস্তু গরম করা উচিত।

মাইক্রোওয়েভ ওভেন কাজ করে কীভাবে এবং কী ধরণের পাত্র ব্যবহার করা সম্ভব জানা থাকলে এই যন্ত্র ব্যবহারের সময় কী করা উচিত ও উচিত নয় মনে রাখতে সুবিধা হবে ও দুর্ঘটনা বা খাদ্যে বিষক্রিয়া এড়ানো সম্ভব হবে।

  • telegram sobbanglay

Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।

বুনো রামনাথ - এক ভুলে যাওয়া প্রতিভা



এখানে ক্লিক করে দেখুন ইউটিউব ভিডিও

বাংলাভাষায় তথ্যের চর্চা ও তার প্রসারের জন্য আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন