খেলা

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ১৯৮৩

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ১৯৮৩ ছিল ক্রিকেট বিশ্বকাপের তৃতীয় আসর।  এই বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিক নাম ছিল 'প্রুডেনশিয়াল বিশ্বকাপ ১৯৮৩'। এই বিশ্বকাপের আসর ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে অনুষ্ঠিত হয়। সর্বমোট আটটি দেশ এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিল। ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে বিজয়ী হয় ভারত

এই বিশ্বকাপে আটটি দলকে দুটি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছিল।  প্রথম গ্রুপে ছিল ইংল্যান্ড, পাকিস্তান, নিউ জিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয় গ্রুপে ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও জিম্বাবয়ে। এই আটটি দেশের মধ্যে জিম্বাবয়ে প্রথমবারের জন্য বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পায়।

এই বিশ্বকাপে দুটি সেমিফাইনাল ও একটি ফাইনাল সমেত মোট ২৭ টি ম্যাচ  খেলা হয়েছিল। মোট পনেরোটি ভিন্ন ভিন্ন ক্রিকেট মাঠে ম্যাচগুলি অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিটি ইনিংস ছিল ৬০ ওভারের। খেলার পোশাক হিসেবে ঐতিহ্যবাহী সাদারঙের পোশাক ও লাল বল ব্যবহার করা হয়েছিল।
আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ১৯৮৩ ফাইনালে গত দুবারের (১৯৭৫ ও ১৯৭৯) বিজেতা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৪৩ রানে হারিয়ে বিজয়ী হয় ভারত। এই বিশ্বকাপে ভারতকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন কপিল দেব। এটি ছিল ভারতের প্রথম ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়। ফাইনাল ম্যাচটি লন্ডনের 'লর্ডস'-এ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ফাইনাল ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ টস জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেয়। ভারত প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে ৫৪.৪ ওভারে ১৮৩ রান তোলে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৫২ ওভারে ১৪০ রানের মধ্যে আটকে যায়। এই ম্যাচে সবচেয়ে বেশি রান করেন ভারতের কৃষ্ণামাচারি শ্রীকান্ত। তিনি ৫৭ বলে ৩৮ রান করেন। এই ম্যাচে সবচেয়ে ভাল বোলিং করেন ভারতের মহিন্দর অমরনাথ। তিনি ৭ ওভার বল করে ১২ রান দিয়ে ৩ টি উইকেট নেন। ফাইনালের 'ম্যান অফ দ্য ম্যাচ' হন অমরনাথ।
এই বিশ্বকাপে ৩৮৪ রান করে সবচেয়ে বেশি রান স্কোরারের শিরোপা পান ইংল্যান্ডের ডেভিড গোয়ের ও ১৮ টি উইকেট নিয়ে সবচেয়ে বেশি উইকেট টেকারের শিরোপা পান ভারতের রজার বিনি। এই বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের উইন্সটন ডেভিস একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথমবারের জন্য ৭ টি উইকেট নিয়ে রেকর্ড স্থাপন করেন। ১৭৫ রান করে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি রান করেন ভারতের কপিল দেব। ৮ টি ম্যাচে মোট ৭ বার বল ক্যাচ করে ভারতের কপিল দেব এই বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশিবার বল ক্যাচ করেন।
এই বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ৩৩৮ রান করে পাকিস্তান কোনো দেশ হিসেবে সবচেয়ে বেশি রান করেছিল।  এই বিশ্বকাপে মোট ৮ টি সেঞ্চুরি ও ৫৭ টি হাফসেঞ্চুরি করা হয়। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ১৯৮৩-তে কাউকে 'ম্যান অফ দ্য সিরিজ' শিরোপা প্রদান করা হয়নি।
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

To Top

 পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে সকলকে পড়ার সুযোগ করে দিন।  

error: Content is protected !!