ধর্ম

ইদুজ্জোহা ।। বকরি ঈদ ।। ঈদুল আজহা ।। ঈদুল আধহা

ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় দু’টো ধর্মীয় উৎসবের একটি হল ইদুজ্জোহা বা বকরি ঈদ।  এই দিনটির অন্যান্য আরও নাম আছে। ঈদুল আজহা বা ঈদুল আধহা। অনেক সময় একে কোরবানির (বলিদান) ঈদ বলেও অভিহিত করা হয়। ঈদুল আজহা শব্দটি আরবি শব্দ, যার অর্থ ‘ত্যাগের উৎসব’। এই দিনটিতে মুসলমানেরা তাদের প্রিয় জিনিষটিকে ত্যাগের মাধ্যমে আল্লাহর কাছে নিবেদন করে থাকেন৷ আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য হজরত ইব্রাহিম নিজের ছেলেকেই কোরবানির দ্বারা ত্যাগ করতে  উদ্যোগী হয়েছিলেন।

ঈদ শব্দের আক্ষরিক অর্থ হল উৎসব। আধহা শব্দটির অর্থ ত্যাগ। ঈদুল আজহা বা ঈদুল আধহা শব্দটি আরবি শব্দ, যার অর্থ ‘ত্যাগের উৎসব’।  ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের দুটি সবচেয়ে বড় উৎসব বা ঈদ পালিত হয়। তার মধ্যে একটি হল ঈদুল ফিতর আর অন্যটি হল ইদুজ্জোহা। হিজরি বছরের শেষ মাস হল জিলহজ। এই মাস মুসলিমদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই মাসেরই ১০ তারিখে পালিত হয় ইসলামের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ইদুজ্জোহা।

প্রচলিত কাহিনী অনুসারে আল্লাহর অন্যতম প্রিয় দূত হজরত ইব্রাহিম (মতান্তরে  আব্রাহাম) স্বপ্নে আল্লাহর কাছ থেকে তার সবথেকে প্রিয় সম্পদটিকে ত্যাগ করার  আদেশ পান। তিনি স্বপ্নে এই আদেশ প্রথমে তাঁর প্রিয়  কয়েকটি উট কোরবানি করলেন। কিন্তু তার পরেও তিনি আবার একই স্বপ্ন দেখলেন। তখন তিনি বুঝলেন তাঁর সবথেকে প্রিয় সম্পদ তো তার পুত্র ইসমাঈল। একথা বুঝতে পেরে তিনি পুত্রকে কোরবানির উদ্দেশ্যে  আরাফাতের ময়দানের দিকে যাত্রা শুরু করলেন। এর মধ্যে আবির্ভাব ঘটে শয়তানের। শয়তান ইব্রাহিমকে অনেকভাবে নিরস্ত করার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাতে সে আল্লাহর ইচ্ছা না পূরণ করে। ইব্রাহিম অবশেষে শয়তানকে পাথর ছুঁড়ে বিদায় করে। পাথর ছুঁড়ে শয়তান বিদায়ের এই ঘটনা হজের  নিয়মের একটি অন্যতম পালনীয় আচার যেখানে বড় বড় থামকে শয়তান রূপে কল্পনা করে পাথর ছোঁড়া হয়। আরাফাত পর্বতের ওপর হজরত ইব্রাহিম যখন তাঁর পিয়তম পুত্রকে কোরবানি দিতে গিয়েছিলেন তখন মন যাতে দুর্বল না হয় তার জন্য চোখে কাপড় বেঁধে নিয়েছিলেন। কিন্তু কোরবানির পর কাপড় সরিয়ে দেখেন সামনে ছেলে দাঁড়িয়ে। ইব্রাহিম অবাক হয়ে দেখে যে তার পুত্র সম্পূর্ণ অক্ষত রয়েছে , আর তার পুত্রের জায়গায় কোরবান হয়েছে একটি দুম্বা। ইব্রাহিমের আল্লাহর প্রতি এই যে বিশ্বাস এবং নিষ্ঠা, তা দেখে আল্লাহ তার পুত্রকে অক্ষত রেখে দেন। এটা আল্লাহ শুধুই তাঁর পরীক্ষা নিচ্ছিলেন।

ইব্রাহিমের এই তার পুত্রকে বলিদানের ঘটনা আল্লাহর প্রতি  ইব্রাহিমের  বিশ্বাস ও নিষ্ঠা আছে সেটাই প্ৰমাণ করে। মুসলমানেদের বিশ্বাস অনুযায়ী আল্লাহর প্রতি ইব্রাহিমের মতই বিশ্বাস ও নিষ্ঠা থাকা প্রতিটি মুসলমানের একান্ত কর্তব্য ।

বাংলাদেশ সহ অন্যান্য মুসলিম প্রধান দেশগুলোতে ইদুজ্জোহা বড় উৎসব।  এই দিনে যে যার নিজের সামর্থ্যমত পশু কোরবানির ব্যবস্থা করে। সাধারণত গরু ও ছাগল কোরবানি দেওয়া হয়ে থাকে। এছাড়া  ভেড়া, মহিষ, উট, দুম্বাও কোরবানিতে দেওয়া হয়। দিয়ে থাকেন। প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী মাংস তিনভাগে ভাগ করা হয়। একভাগ নিজেদের জন্য রাখতে হয়, অন্যভাগ আত্মীয়, বন্ধু বা প্রতিবেশীদের দিতে হয় এবং তৃতীয় ভাগ প্রকৃত গরীবদের দিতে হয়। আত্নীয় প্রতিবেশীদের মধ্যে ভাগ করে দেয়। এই দিনে একে অন্যদের বাড়িতে বেড়াতে যায়। বড়দের থেকে ছোটরা উপহার গ্রহণ করে, যাকে বলা হয় ঈদি। ছোটদের কাছে ঈদি খুবই জনপ্রিয়।

স্বরচিত রচনা পাঠ প্রতিযোগিতা, আপনার রচনা পড়ুন আপনার মতো করে।

ভিডিও

বিশদে জানতে ছবিতে ক্লিক করুন। আমাদের সাইটে বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করুন। ইমেল – contact@sobbanglay.com

 


১ Comment

1 Comment

  1. অজ্ঞাতনামা কেউ একজন

    আগস্ট ২৪, ২০১৮ at ০০:৩২

    BHALO LAGLO …

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।