ধর্ম

ইদুজ্জোহা

ইসলাম ধর্মাবলম্বিদের সবচেয়ে বড় দু’টো ধর্মীয় উৎসবের একটি হল ঈদুল আজহা বা ইদুজ্জোহা(eid-ul-adha) বা বকরি ঈদ। ঈদুল আজহা শব্দটি আরবি শব্দ- যার অর্থ- ‘ত্যাগের উৎসব’।

ইদুজ্জোহা পালনের প্রধান অঙ্গ- কুরবানি (বলিদান)। এ প্রসঙ্গে যে গল্পটি কোরানে রয়েছে সেটি হল-  আল্লাহর  অন্যতম প্রিয় দূত আব্রাহাম(মতান্তরে ইব্রাহিম) আদেশ পান আল্লাহর কাছ থেকে তার সবথেকে প্রিয় সম্পদটিকে ত্যাগ করার। ইব্রাহিমের সবথেকে প্রিয় সম্পদ ছিল তার পুত্র। যদিও পবিত্র কোরানে তার পুত্রের কোন নাম উল্লেখ নেই, তবুও মুসলমানরা বিশ্বাস করেন তার ছেলের নাম ইসমাইল।বাইবেল এ এই ইসমাইল আবার ইসাক নামে পরিচিত।। আল্লাহর আদেশ শোনার পর ইব্রাহিম মনে মনে তৈরী হতে থাকেন আল্লাহর ইচ্ছা পূরণের জন্য।এর মধ্যে আবির্ভাব ঘটে শয়তানের। শয়তান নিরস্ত করার আপ্রাণ চেষ্টা করে ইব্রাহিমকে যাতে সে আল্লাহর ইচ্ছা না পূরণ করে।ইব্রাহিম অবশেষে শয়তানকে পাথর ছুঁড়ে পত্রপাঠ বিদায় করে।পাথর ছুঁড়ে শয়তান বিদায়ের এই ঘটনা হজের বিধি নিয়মের একটি অন্যতম পালনীয় আচার যেখানে বড় বড় থামকে শয়তান রূপে কল্পনা করে পাথর ছোঁড়া হয়।আরাফাত পর্বতের ওপর ইব্রাহিম যখন তার প্রাণাধিক প্রিয় পুত্রের গলা কাটতে উদ্যত সেই সময় এক অবিশ্বাস্য অলৌকিক ঘটনা ঘটে। ইব্রাহিম অবাক হয়ে দেখে যে তার পুত্র সম্পূর্ণ অক্ষত রয়েছে , আর তার পুত্রের জায়গায় কুরবান(বলিদান) হয়েছে একটি দুম্বা।ইব্রাহিমের অটল ভক্তি দেখে আল্লাহ তার পুত্রকে অক্ষত রেখে দেন।

এই গল্পটিই ইহুদি ধর্মে পরিচিত ‘একেদাহ’নামে এবং এর উল্লেখ মোজেসের বাণী সমৃদ্ধ গ্রন্থ-‘তোরাহ’ তে উল্লেখিত আছে।

ইব্রাহিমের এই তার পুত্রকে বলিদানের ঘটনা ইব্রাহিমের অবিচল ভক্তি ও নিষ্ঠা আল্লাহর প্রতি তা প্ৰমাণ করে যা সকল মুসলমানের একান্ত কর্তব্য হওয়া উচিত। আবার একই সাথে মানুষের পরিবর্তে দুম্বার কুরবানি এই অর্থই মনে করায় যে মহান আল্লাহ কখনোই কোন কারণেই মানুষ হত্যা চাননা।

হিজরী পঞ্জিকা অনুসারে জিলহজ মাসের ১০ তারিখে এই উৎসব পালন করেন মুসলমানরা।এই উৎসব হেতু বলিদান দেওয়া পশুর মাংসের বেশিরভাগ অংশই নয় ব্যক্তিদের দিয়ে দেওয়া হয়।এক তৃতীয়াংশ মাংস নির্ধারিত থাকে পরিবার ও আত্মীয় স্বজনের জন্য,বাকি এক ভাগ বন্ধুদের ও বাকি এক ভাগ গরীবদের মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হয়।

১ Comment

1 Comment

  1. Anonymous

    আগস্ট ২৪, ২০১৮ at ১২:৩২ পূর্বাহ্ণ

    BHALO LAGLO …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

To Top

 পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে সকলকে পড়ার সুযোগ করে দিন।  

error: Content is protected !!