আজকের দিনে

আজকের দিনে || ৭ নভেম্বর

কালের চাকা ঘূর্ণায়মান। ইতিহাসের পাতা ওল্টালেই চোখে পড়ে ঘটনার ঘনঘটা। দৈনন্দিন সেই হিসেব আমরা ইন্টারনেটের দুনিয়ায় চোখ রাখলে কিছুটা হয়ত পেয়েও যাবো – কিন্তু সববাংলায় এর পাতায় সেটা পাবো একটু অন্যভাবে – ভারত, বাংলাদেশ এবং বাকি বিশ্বের মনে রাখার মত ঘটনাগুলি পড়ে নেব নিজের মাতৃভাষায়। চলুন দেখে নিই আজকের কিছু  গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা –  ইতিহাসে ৭ নভেম্বর।

বিশেষ দিবসঃ

জাতীয় কর্কটরোগ সচেতনতা দিবস।

ছাত্র দিবস (মহারাষ্ট্র)।

আজকের দিনে ভারতঃ

১৮৫৮ সালে এই দিনে বিশিষ্ট ভারতীয় স্বাধীনতা সংগ্রামী বিপিন চন্দ্র পাল জন্মগ্রহণ করেন।

১৮৬২ সালে এই দিনে মুঘল সাম্রাজ্যের শেষ সম্রাট বাহাদুর শাহ জাফর পরলোক গমন করেন।

১৮৮৮ সালে এই দিনে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী বিখ্যাত ভারতীয় পদার্থ বিজ্ঞানী স্যার চন্দ্রশেখর ভেঙ্কট রমন জন্মগ্রহণ করেন।

১৯২৩ সালে এই দিনে বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, সমাজসেবক ও লেখক অশ্বিনীকুমার দত্ত পরলোক গমন করেন।

 আজকের দিনে বাংলাদেশঃ  

১৯২২ সালে এই দিনে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে দন্ডপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী রাজনৈতিক নেতা গোলাম আযম জন্মগ্রহণ করেন।

১৯৭৫ সালে এই দিনে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদান প্রদানকারী ও প্রধান সামরিক আইন প্রশাসক খালেদ মোশাররফ পরলোক গমন করেন।

১৯৭৫ সালে এই দিনে বীর উত্তম খেতাব প্রাপ্ত বাংলাদেশের বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও সেক্টর কমান্ডার এ.টি.এম. হায়দার পরলোক গমন করেন।

১৯৭৫ সালের এই দিনে বাংলাদেশের তৎকালীন সেনা প্রধান মেজর জেনারেল জিয়াউর রহমান সেনাবাহিনী ও জনতার মিলিত অভ্যুত্থানে গৃহবন্দী অবস্থা থেকে মুক্ত হন।

আজকের দিনে বিশ্বঃ

৯৯৪ সালে এই দিনে বিখ্যাত মুসলিম দার্শনিক ইবনে হাজম জন্মগ্রহণ করেন।

১৬৬৫ সালের এই দিনে ইংল্যান্ডের বিখ্যাত পত্রিকা ‘লন্ডন গেজেট’ প্রথম প্রকাশিত হয়।

১৬৫৯ সালের এই দিনে ফ্রান্স ও স্পেনের মধ্যে পাইরেনসিস শান্তি চুক্তি’ স্বাক্ষরিত হয়।

১৭৮৩ সালের এই দিনে ইংল্যান্ডে সর্বশেষ প্রকাশ্যে ফাঁসি দেওয়া হয়।

১৮৯৩ সালের এই দিনে যুক্তরাষ্ট্রের কলরাডো অঙ্গরাজ্যে প্রথম নারীদের ভোটাধিকার দেওয়া হয়।

১৯১৭ সালের এই দিনে লেনিনের নেতৃত্বে সোভিয়েত রাশিয়া পৃথিবীর সর্বপ্রথম সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

১৯৪৪ সালের এই দিনে ফ্রাঙ্কলিন ডি রুজভেল্ট চতুর্থবারের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়ে রেকর্ড তৈরি করেন।

১৯৫৬ সালের এই দিনে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপে সুয়েজ খাল নিয়ে নিরন্তর চলতে থাকা সংঘর্ষের অবসান ঘটে।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

To Top

 পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে সকলকে পড়ার সুযোগ করে দিন।  

error: Content is protected !!