আজকের দিনে

৫ জুন ।। বিশ্ব পরিবেশ দিবস

প্রতিবছর প্রতিমাসের নির্দিষ্ট কিছু দিনে কিছু  হয়। নির্দিষ্ট দিনে অতীতের কোনো গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাকে স্মরণ করা বা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে জনসচেতনতা তৈরী করতেই এই সমস্ত দিবস পালিত হয়। বিশ্বের পালনীয় সেই সমস্ত দিবসগুলি মধ্যে একটি হল বিশ্ব পরিবেশ দিবস (World Environment day)।

৫ জুন সারা বিশ্বজুড়েই বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালন করা হয়ে থাকে।

পরিবেশকে দূষণের হাত থেকে রক্ষা করতে এবং তার ভারসাম্য বজায় রাখতে এই দিনের আয়োজন। ১৯৭২ সালের জুন মাসে সুইডেনের স্টকহোমে রাষ্ট্রসংঘের প্রথম মানবিক পরিবেশ সম্মেলন আয়োজিত হয়। ঐ সম্মেলনেই রাষ্ট্রসংঘের পরিবেশীয় কার্যক্রম শুরু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ পরিষদে ৫ জুন তারিখটি বিশ্ব পরিবেশ দিবস হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তার দুই বছর পরে ১৯৭৪ সাল থেকে প্রত্যেক বছর দিনটি পালিত হয়ে আসছে।

সারা বিশ্বে দিনটি পালন করা হয় সাধারণ মানুষের মধ্যে পরিবেশ সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াবার এবং তাদের পরিবেশ সংরক্ষণের কাজে উৎসাহ দেবার উদ্দেশ্যে। প্রকৃতি না বাঁচলে মানবজাতিই যে বিপন্ন হবে, সেই নিয়ে সচেতনতা বাড়ানোই মূলত এই দিনের উদ্দেশ্য। শিল্পায়ন, নগরায়ন, বিশ্বায়ন আর আধুনিকতার জেরে গোটা বিশ্বজুড়েই পরিবেশের অবস্থা প্রতিনিয়ত খারাপ হয়েই চলেছে। যে ভাবে পৃথিবীর উষ্ণতা বাড়ছে, ভূগর্ভে সঞ্চিত জল ও জ্বালানি তলানিতে এসে ঠেকেছে , তাতে অদূর ভবিষ্যতে মানব সভ্যতার সামনে যে বিশাল সংকট এসে উপস্থিত হবে তাতে কোনও সন্দেহ নেই। পরিবেশ রক্ষার দায়িত্ব সকলের। এই পরিবেশ সচেতনতা তৈরি করাই এই দিনটির উদ্দেশ্য।  ১৯৭৪ সালে প্রথম পালন করার সময় থেকেই প্রতি বছর এই দিনটির জন্য নির্দিষ্ট একটি থিম বা বিষয় ঠিক করা হয়। সঙ্গে প্রতি বছর কোন একটি শহর বা দেশকে দিনটির মূল আয়োজনের দায়িত্ব দেওয়া হয়। ১৯৭৪ সালে প্রথম পরিবেশ দিবসের থিম ছিল ‘একমাত্র পৃথিবী’ (Only One Earth)’।  আয়োজক শহর ছিল আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের স্পোকান।

কয়েকটি থিম এবং আয়োজক দেশ বা শহরের নাম দেওয়া হল।

সালথিমআয়োজক শহর, দেশ
১৯৭৪একমাত্র পৃথিবী (Only One Earth)'আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের স্পোকান
১৯৭৫মানব বসতি (Human Settlements)বাংলাদেশের ঢাকা
১৯৭৬জল: জীবনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ
(Water: Vital Resource for Life)
কানাডার অন্টারিও
১৯৭৭ওজোন স্তরের সমস্যা; ভূমির ক্ষতি এবং মাটির অবক্ষয় (Ozone Layer Environmental Concern; Lands Loss and Soil Degradation)বাংলাদেশের সিলেট

২০১৮ সালের থিম ছিল প্লাস্টিক দূষণকে প্রতিহত করা (Beat Plastic Pollution)। আয়োজক দেশ ছিল ভারত। প্লাস্টিকের যে সমস্যা তা বোঝাতে এবং প্লাস্টিকের ব্যবহার কমাতে লোকেরা তাদের প্রতিদিনের জীবনে যাতে পরিবর্তন আনতে সচেষ্ট হতে পারে, তাই বলাই ছিল এই থিমের উদ্দেশ্য।

তথ্যসূত্র


  1.  আন্তর্জাতিক ও রাষ্ট্রীয় দিবসের ইতিকথা, বিমান বসু, পৃষ্ঠা-৪৭
  2. https://en.wikipedia.org/wiki/World_Environment_Day
  3. https://roar.media/bangla/
  4. https://eisamay.indiatimes.com/

 
Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

To Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন।

রচনাপাঠ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে চান?



এখানে ক্লিক করুন

বাংলাভাষায় তথ্যের চর্চা ও তার প্রসারের জন্য আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন