ভূগোল

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র

আমেরিকা পতাকাআমেরিকা দেশটির কথা শুরু করতে গেলে প্রথমেই মনে পড়ে যায় ইতালীয় নাবিক ক্রিস্টোফার কলম্বাসের কথা৷ আনুমানিক ১৪৯২ খ্রীস্টাব্দে ইউরোপ থেকে ভারতে আসার জলপথ আবিষ্কার করতে গিয়ে আবিস্কার হয় আমেরিকা মহাদেশের পূর্বদিকের দ্বীপপুঞ্জ। পরবর্তীকালে পর্তুগিজ নাবিক আমেরিগো ভেসপুচি সেই পথ অনুসরণ করে মূল ভূখন্ডে উপস্থিত হয়৷ এই তো গেল ইতিহাসের কথা তবে আমেরিকা বললে মশাল হাতে দাঁড়িয়ে থাকা স্ট্যাচু অব লিবারটির কথা যেমন চোখে ভেসে ওঠে তেমনই স্বপ্নের নগরী হলিউডের কথা মনে পড়ে যায় যেটি লস অ্যঞ্জেলেসে অবস্থিত। আবার ডিজনি ওয়াল্ডের পাশাপাশি মনে আসে শিকাগো শহরের কথা।

উত্তর আমেরিকা মহাদেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দেশ হল আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র উত্তরে  কানাডা, দক্ষিণে মেক্সিকো, পূর্ব দিকে আটলান্টিক মহাসাগর  এবং পশ্চিমে প্রশান্ত মহাসাগর ঘিরে রয়েছে সমগ্র দেশটিকে। আলাস্কা রাজ্যটি দেশের উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত যার পূর্ব সীমান্তে রয়েছে কানাডা ও পশ্চিমে বেরিং প্রণালী রাজ্যটিকে রাশিয়া থেকে আলাদা করে রেখেছে।

দেশের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি। ১৭৮৮ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্ক সিটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম রাজধানী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। নিউইয়র্ক সিটি  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম শহর। বর্তমান বিশ্বে অন্যতম প্রধান বাণিজ্যিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা কেন্দ্র হল নিউইয়র্ক । বিশ্বব্যাপী এর রাজনীতি, মিডিয়া, বিনোদন, ফ্যাশনের প্রভাব এখানে দেঝা যায়। ৯ই জুলাই ১৭৯০ সালে কংগ্রেস রেসিডেন্ট অ্যক্ট পাশ করে যার দ্বারা পটম্যাক নদীতে একটি রাজধানী নির্মানের অধিকার দেয়। ১৬ই জুলাই আইনটি কার্যকরী হয়।আমেরিকা ম্যাপ

আয়তনের বিচারে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম দেশ।

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রার নাম যুক্তরাষ্ট্রীয় ডলার।

এই দেশে ইংরেজি ভাষার ব্যবহার সর্বত্র দেখা যায় এটিই এখানকার জাতীয় ভাষা। রাষ্ট্রীয় ভাষা হিসেবে কোন ভাষাই স্বীকৃতি লাভ করে নি৷ এছাড়া স্পেনীয়, হাওয়াইয়ান, সামোয়ান, চামেরো, ক্যারোলিনিয়ান, চেরোকি আঞ্চলিক ভাষার ব্যবহার দেখা যায়৷

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে একটি যুক্তরাষ্ট্রীয় প্রজাতান্ত্রিক সরকার ব্যবস্থা রয়েছে।

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের উল্লেখযোগ্য ভ্রমণ স্থানের তালিকা অপূর্ণই থেকে যাবে যদি তালিকার শুরুতেই নিউ ইয়র্কের নাম না থাকে।এ ছাড়াও বিখ্যাত ভ্রমণ স্থানের মধ্যে পড়ে ইয়েলোস্টোন জাতীয় উদ্যান, লাস ভেগাস স্ট্রীপ, নায়েগ্রা জলপ্রপাত, ম্যানহাটন, গ্র্যান্ড ক্যানিয়ন ইত্যাদি। আমেরিকার অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য উপলব্ধি করতে প্রতিবছর অজস্র পর্যটক এখানে আসেন৷

পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম গ্রন্থাগারটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াসিংটন ডিসিতে অবস্থিত ; লাইব্রেরি অফ কংগ্রেস। প্রায় ১৬৪ মিলিয়নের বেশী বই এখানে আছে৷ প্রায় ১.৮ মিলিয়ন মানুষ নিত্য এখানে এসে থাকেন৷

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

To Top

 পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে সকলকে পড়ার সুযোগ করে দিন।  

error: Content is protected !!